ঘাড় ব্যথা কেন হয়? ঘাড় ব্যথা দূর করার উপায়

0
957
ঘাড় ব্যথা

ঘাড় ব্যথা এটা এখনকার সময়ের সবচেয়ে আলোচিত বিষয়। ঘাড় ব্যথাতে ভূগে থাকেন না এমন মানুষ পাওয়া যাবে না। ঘাড় ব্যথা শুরু হয় অফিসে বসে থেকে কাজ করার কারনে। সাধারনত সকলেই এখন কম্পিউটারে বসে কাজ করে। ঘন্টার পর ঘন্টা কম্পিউটারের সামনে বসে কাজ করা ছাড়াতো কোন উপায়ও নেই।

ঘাড় ব্যথা কেন হয়

ঘাড় ব্যথার প্রধান ও অন্যতম কারণ হল সার্ভিকাল স্পন্ডিলোসিস। মেরুদন্ডের হাড় ক্ষয় রোগটিই হলো স্পন্ডিলোসিস। মেরুদন্ডের ঘাড়ের অংশ ক্ষয় হওয়াকে বলে সার্ভিকাল স্পন্ডাইলোসিস। প্রতিটা মানুষের মেরুদন্ড গঠিত হাড়, মাংশপেশী ও হাড়ের জোড়া নিয়ে। সার্ভিকাল স্পন্ডাইলোসিস রোগটি বয়স বৃদ্ধি হওয়ার সাথে খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আছে। অনেকে অফিসে বা নিজ কর্মস্থলে সামনের দিকে ঝুঁকে কাজ করে এর ফলে সার্ভিকাল স্পন্ডাইলোসিস শুরু হয়ে থাকে।

আরও একটু বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক। আমাদের ঘাড়কে যে হাড় শক্ত করে ধরে রাখে তার নাম কশেরুকা বা ভারটেব্রা। এই কশেরুকা বা ভারটেব্রা মধ্যে ফাঁকা জায়গা যখন কমে যায় তখন ঘাড়ে ব্যথা হয়। লক্ষন সরূপ, যখন ঘাড় ঘোড়ানো বা হাত নাড়াচাড়া করা হয় তখন কশেরুকার স্নায়ুর উপর চাপ পরে আর চাপ থেকে ব্যথা হতে থাকে।

ঘাড় ব্যথা চিকিৎসা

মেডিসিন হিসাবে সাধারনত এসিক্লোফেনাক খাওয়া যেতে পারে। তবে খুব একটা উপকার হবে না। এসিক্লোফেনাক মেডিসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জেনে নিতে এখানে প্রবেশ করুন। আর অবশ্যয় যে কোন মেডিসিন সেবনের পূর্বে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সেবন করবেন।

অনেক সময় তীব্র ব্যথা হলে অপারেশন করতে হতেও পারে। এছাড়া ফিজিওথেরাপীর মাধ্যমে সম্পূর্ণ ঘাড় ব্যথা মুক্ত করা সম্ভব। ফিজিওথেরাপীর পাশাপাশি অবশ্যয় নিম্নের কাজ গুলো করতে হবে।

১) শক্ত সমান বিছানাতে মাথার নিচে বালিশ নিয়ে চিত হয়ে ঘুমাতে হবে।
২) সকালে তাড়াহুড়া করে বিছানা ত্যাগ করা যাবে না, ঘুম থেকে উঠে হালকা ঘাড় ম্যাসাজ করুন।
৩) সার্ভিক্যাল কলার মাঝে মাঝে ব্যবহার করতে পারেন। তবে একটানা ভাবে ব্যবহার থেকে দূরে থাকুন।
৪) পেইন কিলার মেডিসিন পরিহার করুন। যথাযথ ভাবে চিকিৎসা না নিয়ে কোন মেডিসিন সেবন করে ব্যথা কমানোর চেষ্টা করবেন না।
৫) অফিসে বা কর্মস্থলে নিজের বসার চেয়ারে বসে সোজাঁ হয়ে কাজ করুন। কম্পিউটার ব্যবহার করার ক্ষেত্রেও একই নিয়ম মেনে চলুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here