ঘুমের ঔষধ এর অপকারিতা

0
1650
ঘুমের ঔষধ এর অপকারিতা

ঘুম আমাদের সবার জন্য অপরীহার্য। অনেকে বেশি ঘুমাতে পছন্দ করেন আবার কেউ কম ঘুমাতে ভালোবাসেন। ঘুম ভালো হলে সারাটা দিন ভালো যায় আর ঘুম কম হলে সারাটা দিন মেজাজ খিটখিটে হয়ে থাকে এবং সবকিছু অবসাদ লাগে। অনেকে বিছানায় যাওয়ার সাথে সাথে ঘুমিয়ে পরে আবার অনেকে আছে ৫ থেকে ৭ টা ঘুমের ঔষধ খেয়েও নিয়মিত ঘুম হয় না। আজ জেনে নিবো ঘুমের ঔষধের অপকারীতা বা খারাপ দিক গুলো।

সাধারনত একজন মানুষের ৭ থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমানো উচিৎ। যখন আপনার ঘুম ক্রমাগত ভাবে কম হবে আপনি তখন হয়তো ঘুমের ঔষধ থাওয়া শুরু করবেন। কিন্তু আপনি জানেন কি এই ঘুমের ঔষধের ক্ষতিকারক দিক গুলো? ঘুমের ঔষধ সেবন করতে হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। কিন্তু নিয়মিত ভাবে রোজ ঘুমের ওষুধ সেবন করলে অনেক রকম সমস্যা হতে পারে।

ঘুমের ঔষধের অপকারীতা

১) ঘুমের ঔষধ সেবন করলে তন্দ্রাছন্নতা দেখা দিবে। আপনি যে দিন ঘুমের ঔষধ সেবন করবেন সেই দিন ঘুম পরিমান মত না হলে সেই ঘুমের প্রভাব পরের দিন ফেলবে। আর তন্দ্রাছন্ন অবস্থায় কোন যানবাহন সহ ভাড়ী যন্ত্রপাতি চালানো সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

২) আপনি ঘুমের ঔষধ সেবন করলে আপনার ব্যবহার আচার দিন দিন পাল্টে যাবে। কারন ঘুমের চাহিদা আপনার শরীরে সবসময় থাকবে আর ঘুম লাগলে ক্লান্ত অনুভূত হয়। তখন ভালো কথাও আপনার শুনতে খারাপ লাগবে ও খিটখিটে মেজাজ প্রভৃতি নানারকমের লক্ষণ দেখা দিতে পারে।

৩) ঘুমের ঔষধ একটি নেশা দ্রব্য মতই কাজ করে। ঘুমের ঔষধ গ্রহণকারীর হ্যালোসিনেশন সমস্যাগুলো দেখা দেয়। ঘুমের ওষুধের তালিকায় রয়েছে বহুল প্রচলিত নেশা দ্রব্যগুলো যা আমাদের শরীরের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর।

৪) অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ সেবন করলে মানুষের মৃত্যু হতে পারে। ঘুমের ঔষধ মানুষের হার্ট ও ব্রেনের রক্তনালীর রক্ত চলাচল বন্ধ করে দেয়। আবার অনেকসময় অতিরিক্তি ঘুমের ওষুধ খেলে প্যারালাইসিস হয়ে যেতে পারে। এমনকি অনেকে কোমায় চলে যেতে পারে সেই সাথে স্মৃতিশক্তি হারিয়ে যাওয়ার আশংকা থাকে।

৫) ঘুমের ঔষধ খেলে শরীরে সবর্দা ঘুমের প্রভাব ফেলে। এর কারনে শরীর থেকে বর্জ্য বেড়িয়ে যেতে বাধাগ্রস্থ হয়। এতে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা লোপ পায়। এছাড়া ঘুমের ঔষধ নিয়মিত খেতে থাকলে একই মাত্রার পাওয়ার আর কাজ করে না। এমতাবস্থায় ঘুমের ঔষধ ছাড়া আর ঘুমানো সম্ভব নয়।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে এবং এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার ও পোষ্টের নিচে আপনার মতামত দিয়ে সাথেই থাকুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here