চকলেট খেলে কি হয়, চকলেটের উপকারিতা কী?

0
89
চকলেট খেলে কি হয়

চকলেট পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া খুব কষ্টকর। বাচ্চা থেকে শুরু করে বৃদ্ধরা পর্যন্ত বেশির ভাগ মানুষ‌ই চকলেট খেতে পছন্দ করেন। উপহার ও পুরস্কার সহ নানা রকম অনুষ্ঠানে বেশির ভাগ সময় চকলেট সবার প্রথম পছন্দ। আবার বাচ্চারা চকলেট এতোটাই পছন্দ করে যে চকলেট দেখিয়ে অনেক বাচ্চার কান্না থামানো যায়। কিন্তু চকলেট আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটা উপকারী সেই সম্পর্কে আজ জানবো।

চকলেট কত প্রকার?

বাজারে মূলত দুই ধরনের চকলেট বেশি পাওয়া যায়। একটি হলো ডার্ক চকলেট এবং একটি হলো মিল্ক চকলেট। ডার্ক চকলেট স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। চকলেটের মূল উপাদান হলো কোকোয়া। আর এই কোকোয়া খাদ্যগুণে ও পুষ্টিতে ভরপুর। তবে ডার্ক চকলেট বিভিন্ন প্রক্রিয়াতে বানানো হয়।

কোন চকলেট স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী?

মিল্ক চকলেটের থেকে ডার্ক চকলেটে কোকোয়ার পরিমাণ ৭০ ভাগ বেশি থাকে। মিল্ক চকলেট বানানো হয় দুধ এবং চিনি দিয়ে। যা দাঁতের ক্ষতি করে এবং রক্তে সুগারের পরিমান বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু ডার্ক চকলেটে কোকোয়ার পরিমাণ যতো বেশি থাকবে সেই চকলেট স্বাস্থ্যের জন্য ততবেশি উপকারী। তাছাড়া এতে রয়েছে পলিফেনলস, যা নানা ভাবে শারীরিক গঠনে সহায়তা করে। শুধু তাই নয়, এতে রয়েছে আয়রন, ম্যাগনেশিয়াম, কপার। ফলে ডার্ক চকলেট খাওয়া অধিকতর স্বাস্থ্যকর।

চকলেটের উপকারিতা

১) হৃদযন্ত্রের সমস্যা কমাতে এবং রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।
২) ডার্ক চকলেট হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোক হওয়া থেকে রক্ষা করে।
৩) শিশু থেকে প্রাপ্তবয়স্ক পর্যন্ত কোলেস্টেরল কমাতে সহায়ক।
৪) ডার্ক চকলেটে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান দূর করে।
৫) শরীরে উদ্দীপনা এবং প্রফুল্লতা বাড়াতে সাহায্য করে ডার্ক চকলেট।
৬) ডার্ক চকলেটে যে রাসায়নিক পদার্থ থাকে তা ডায়রিয়া নিরাময়ে উপকারী।
৭) ডার্ক চকলেট ডায়াবেটিস কে নিয়ন্ত্রণে রাখে। কারণ এতে রয়েছে ফ্ল্যাভোনয়েডস।
৮) ডার্ক চকলেট গুলিয়ে মুখে মাখলে মুখের ব্রণ দূর হয়। এছাড়া মুখের কালো ও মরা ত্বক পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।
৯) ডার্ক চকলেট শরীরে রক্ত প্রবাহ বাড়াতে অত্যান্ত ফলদায়ক, এবং চুল পড়া বা অ্যালোপেসিয়া রোগ প্রতিরোধ করে।
১০) গর্ভবতী মায়েরা নিয়মিত ডার্ক চকলেট খেলে খাবারে রুচি আসে এবং একাগ্রতা দূর করতে বেশ কার্যকর।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন সেই সাথে এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here