চোখ উঠলে কী করবেন, চোখ ওঠার প্রতিকার

0
651
চোখ ওঠা

এমন কোন মানুষ নেই যে চোখ ওঠা থেকে রেহায় পেয়েছে, শিশু, তরুন ও বৃদ্ধদের সবার একবার হলেও চোখ উঠেছে। চোখ উঠলে আমরা সাধারনত ভয় পেয়ে যায় কিন্তু এতে ভয়ের কিছু নেই। চোখ ওঠা বিভিন্ন কারনে হতে পারে তার মধ্যে অন্যতম চোখ ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হলে। নিম্নে চোখ ওঠার লক্ষণ ও প্রতিকার আলোচনা করা হলো।

চোখ ওঠার লক্ষণ
১) চোখ জ্বালাপোড়া করা
২) চোখে ঝাপসা দেখা
৩) চোখ লাল হয়ে যাওয়া
৪) চোখ দিয়ে পানি পড়া
৫) চোখে খচখচ ভাব হওয়া
৬) চোখে অতিরিক্ত কেতুর জমা

চোখ ওঠার প্রতিকার
চোখ উঠলে বারবার পানির ঝাপটা দিবেন না এবং নোংরা কোন পানি চোখে দিবেন না। হাতের আঙ্গুল দিয়ে চোখ বা চোখের কোনা পরিষ্কার করতে যাবেন না, খুব প্রয়োজন হলে টিস্যু ব্যবহার করুন। বাহিরে বের হলে চোখে সানগ্লাস পড়ুন তবে সাদা গ্লাস নয়। এতে রোদে চোখ জ্বালাপোড়া কম হবে। চোখে অতিরিক্ত ব্যথা ও জ্বালা এবং ফুলে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহন করুন। চোখ মুলত ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া দ্বারা চোখ আক্রান্ত হলে চোখ উঠে থাকে তাই নিয়মিত তিন বেলা অ্যান্টিবায়োটিক ড্রপ ক্লোরামফেনিকল ব্যবহার করতে হবে। শরীরে হালকা জ্বর হতে পারে এতে একটি প্যারাসিটামল খেতে পারেন। যে চোখ আক্রান্ত হয়েছে সেই দিকে ঘুরে রাত্রে শুয়ে থাকুন এতে অন্য চোখ মুক্ত থাকবে। চোখে চুলকানি হলে অ্যান্টিহিস্টামিন ঔষধ সেবন করা যেতে পারে তবে কোন অ্যান্টিবায়োটিক ঔষধ সেবন করার প্রয়োজন নেই। কোন ভাবেই যেন ধুলাবালি, দূষিত বাতাস এবং ধোঁয়া চোখে প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

চোখ ওঠা দেখা যায় একটি সিজনাকাল সময়ে। এই সময়ে পরিবারের সকলের চোখ ওঠে থাকে। পরিবারের কেউ বাদ যায় না এই সময় কালে একটু চোখের যত্ন নিতে হবে। যে ব্যক্তি চোখ ্ওঠাতে আক্রান্ত হয়েছে তার সাথে হ্যান্ডশেক করলে খুব দ্রুত জীবানু মুক্ত করা সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন সেই সাথে এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here