আপনি কি ধুলাবালির ক্ষতি থেকে বাঁচতে চান?

0
465
ধুলাবালি ক্ষতি

প্রথম কথা বাংলাদেশ একটি নিম্নমানের দেশ। যেখানে প্রতিটা জায়গার আনাচে কানাচে ধুলাবালি আছে। ধুলাবালি ক্ষতি প্রতিটা মানুষের স্বাস্থ্যর জন্য ক্ষতিকর। ধুলা যে কত বড় ক্ষতি করতে পারে সেটা আমাদের সবার ধারণার বাইরে। ধুলার বড় কণা গুলো তেমন একটা সমস্যা করতে পারে শরীরে কিন্তু অতি ক্ষুদ্র কলা গুলো আমাদের ফুসফুসে মারাত্বক সমস্যা সৃষ্টি করে। এমনকি রক্তের সাথেও মিশে যেতে পারে ক্ষুদ্র কণা গুলো।

ধুলাবালি যে ভাবে ক্ষতি করে

সাধারনত ধুলাবালির মধ্যে দিয়ে আমাদের প্রতিনিয়ত চলতে হয়। তাই ধুলাবালি আমাদের শরীরে যে ক্ষতি করে সেটা আমরা সহজেই বুঝতে পারি না। ধুলার ক্ষুদ্র কণা গুলো আমাদের নাক ও মুখ দিয়ে ফুসফুসে পৌছে যায়। শুরু হয় হাঁচি, কাশি, অ্যাজমা, হাঁপানী সহ অ্যালার্জি। ফুসফুসে যে ধুলা কণা গুলো জমা হয় সেগুলো সহজে প্রবেশ করে কফ জমতে সাহায্য করে।

ধুলাবালির ক্ষতি থেকে মুক্ত থাকতে যা করণীয়

পৃথিবীর পৃষ্টদেশে প্রতিনিয়ত ধুলবালি বেড়ে চলেছে। তাই প্রাকৃতিক ধুলাবালি নিয়ন্ত্রণ করা অনেক কঠিন। তবে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চললে ধুলাবালি থেকে মুক্ত তাকা যায়।

১) বাহিরে বের হলে চোখে সানগ্লাস পরতে পারেন এতে আপনার চোখ ধুলাবালি থেকে মুক্ত থাকবে।
২) মুখে মাস্ক পরুন এতে আপনার নাকে কোন ধুলা প্রবেশ করতে পারবে না। ফলে অ্যালার্জির সমস্যা থেকে রেহায় পাবেন।
৩) গরমে প্রতিদিন অন্তত দুই বার গোসল করার চেষ্টা করুন। কারন ধুলাবালি আপনার শরীরে ও চুলে চুলকানির সৃষ্টি করতে পারে।
৪) হাত ও হাতের নখের দিকে নজর রাখুন। ধুলাবালি আপনার হতে ও নখে জমা হয়ে ব্যাকটেরিয়ার জন্ম দিবে এতে আপনার পেটে সমস্যা সৃষ্টি হবে। তাই নিয়মিত হাত পরিষ্কার করার অভ্যাস গড়ে তুলুন।
৫) যেখানে সেখানে ময়লা না ফেলে ডাষ্টবিনে ময়লা ফেলুন এবং অপরকে উৎসাহ করুন।
৬) নিয়মিত পোষাক পরিষ্কার করুন। পোষাকে ময়লা বা ধুলাবালি লেগে শরীরের স্কিন স্ক্যাবিস রোগ সৃষ্টি হতে পারে। তাই নিয়মিত পোষাক ডিটারজেন্ট পাউডার দিয়ে ধৌত করুন।
৭) কল কারখানা বা যানবাহনের কালো ধোঁয়া থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। এই কালো ধোঁয়া কার্বণডাইঅক্সাইডের সাথে মিশে আমাদের ফুসফসে ক্যান্সার সৃষ্টি করে।

সর্বশেষ, নিজে মেনে চলুন, অপরকে মেনে চলতে উৎসাহ করুন। গাছ লাগান পরিবেশ বাঁচান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here