রক্তশূন্যতা দূর করার উপায়

0
299
রক্তশূণ্যতা

রক্ত যা মানবদেহের একটি বড় অংশ। প্রতিটা মানুষের বয়স ও লিঙ্গ ভেদে রক্তের লোহিত রক্তকণিকায় প্রয়োজনীয় পরিমাণ হিমোগ্লোবিনের একটি নির্দিষ্ট মাত্রার চেয়ে কমে গেলে রক্তশূণ্যতা দেখা দেয়। প্রতিটা পুরুষের ক্ষেত্রে ১৩০ থেকে ১৮০ গ্রাম এবং প্রতিটা মহিলার ক্ষেত্রে ১১৫ থেকে ১৬৫ গ্রাম হিমোগ্লোবিন রক্তে থাকে। একজন পূর্ণ বয়স্ক মহিলা বা পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ৭০ থেকে ৮০ গ্রাম নিচে নেমে আসলে মারাত্মক রক্তশূন্যতা দেখা যায়। তাই আসুন জেনে নেয়া যাক রক্তশূণ্যতার কারন ও প্রতিকার।

রক্তশূন্যতার কারণঃ

দীর্ঘ মেয়াদি কোন রোগ হলে যেমন হজমে সমস্যা, অন্ত্রের রোগ, দীর্ঘদিন আমিষ জাতীয় খাবারের ঘাটতি, পাকস্থলীর বাইপাস অপারেশন, যক্ষা, টিউমার ইত্যাদি থাকলে শরীরে রক্তশূণ্যতা দেখা দেয়। দেহের লোহিত রক্তকণিকা ভেঙে যাওয়া, রক্তক্ষরণ, পেপটিক আলসার, পাইলস, কৃমির সংক্রমণ, মাসিকের সময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ, ঘন ঘন গর্ভধারণ ইত্যাদির কারণেও রক্তশূন্যতা দেখা দিতে পারে। এছাড়া কোন কারণে শরীরে লোহিত রক্তকণিকা কম তৈরি হলেও রক্ত শূণ্যতা দেখা দেয়।

রক্তশূণ্যতার উপসর্গগুলোরঃ

১। অবসাদগ্রস্ত হতে পারে,
২। ক্লান্তি অনুভব হতে পারে,
৩। মাথা ঝিম ঝিম করা,
৪। চোখে ঝাপসা দেখা,
৫। বুক ধড়ফড় করা,
৬। হাত, পা ও চোখ ফ্যাকাসে হয়ে যেতে পারে।

রক্তশূণ্যতা হলে করনীয়ঃ

ক। প্রতিদিন ঠান্ডা পানি পান করতে হবে এবং গোসল করতে হবে।
খ। রক্তশূন্যতা প্রতিরোধে প্রতিদিন ডুমুর ফল খেতে পারেন।
গ। আয়রণ গ্রহণ করতে প্রতিদিন ১ থেকে ২ টি আপেল খেতে পারেন।
ঘ। রক্তশূন্যতা প্রতিরোধে প্রতিদিন ভিটামিন বি-১২ খেতে হবে।
ঙ। রক্ত কোষ তৈরিতে ভিটামিন সি জাতীয় যে কোন ফল খেতে হবে।
চ। শরীরে আয়রণের অভাব হলে প্রতিদিনের খাবারে আয়রণ যুক্ত খাবার রাখতে হবে।
ছ। প্রতিদিন ১ চামচ মধুর সাথে লেবুর রস মিলিয়ে পান করলে রক্তশূণ্যতা দূর হবে।
জ। সবুজ শাকসবজি, ফলমূল ও ছোলা বুট জাতীয় খাবার প্রচুর পরিমানে খেতে হবে।
ঝ। নিয়মিত গরুর মাংস, ডিম দুধ জাতীয় খাবার প্রচুর পরিমানে খেতে হবে।

পরামর্শঃ

রক্তশূণ্যতা দেখা দিলে উপরোক্ত নিয়মগুলো মেনে চলার পাশাপাশি অবশ্যই একজন অভিজ্ঞ হেমাটোলজি রক্ত রোগ বিশেষজ্ঞ/হেমাটোলজি চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহন করে মেডিসিন সেবন করতে হবে।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন সেই সাথে এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here