লবঙ্গ কেন খাবেন? লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা সমূহ

0
866
লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা

লবঙ্গ অতি একটি পরিচিত মসলা। লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা জানলে আপনি আবাক হবেন। লবঙ্গকে ইংরেজি ভাষায় ক্লোভস বলা হয়। লবঙ্গ সাধারনত খাবারের স্বাদ ও গন্ধ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। লবঙ্গ মসলা বাদেও এটি একটি ভেষজ মেডিসিন। লবঙ্গতে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফাইবার, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, ভিটামিন এ, ভিটামিন কে, সি সহ জিংক বিদ্যমান। লবঙ্গ সাধারনত একটু ঝাঁঝালো ধরনের হয়ে থাকে। আর এই ঝাঁঝের জন্য অনেকে লবঙ্গ পছন্দ করে না। কিন্তু লবঙ্গ এমন একটি মসলা যা পুষ্টিগুনে ভরপুর।

লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা

১। সর্দি ও কাশিতে লবঙ্গ বেশ উপকারী ও জনপ্রিয়। রং চায়ের সাথে লবঙ্গ মিশিয়ে খেলে বুকের জমাট বাধা কফ দূর হয়।

২। মুখের দূর্গন্ধ সহ মুখের বা জিহ্ববার ঘা দূর করতে অত্যান্ত কার্যকরী। লবঙ্গতে বিদ্যমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মুখের ফাঙ্গাল ইনফেকশন দূর করে থাকে।

৩। লবঙ্গ বদ হজম দূর করতে ভুমিকা রাখে। তাছাড়া বমি বমি ভাব সহ মাথা ঘোরা ও মাথা ব্যথা দূর করে। নিয়মিত লবঙ্গ খেলে পেটের অতিরিক্ত গ্যাস বেড়িয়ে যায়।

৪। লবঙ্গের গুড়ো ও মধু একত্রে মিশিয়ে মুখে মাখলে মুখের ব্রণ সেরে যায়। এছাড়াও মুখের ও ঠোঁটের কালো দাগ বা ছাপ দূর করে লাবণ্যতা ফিরিয়ে আনে।

৫।লবঙ্গ খাওয়ার উপকারিতা মধ্যে যাদের অতিরিক্ত চুল পড়া ও চুল পাঁকা সমস্যা আছে তারা লবঙ্গের তেল মাথায় মাখলে উপকার পাওয়া যায়। এছাড়াও মুখের দাড়ি ঘন ও কালো করতে লবঙ্গ খুবই কার্যকরী।

৬। অনেকের দাঁত ব্যথা হয় প্রচুর এবং মাড়ি ফুলে পুঁজ জমে থাকে। তারা নিয়মিত গরম পানিতে লবঙ্গ সিদ্ধ করে কুলকুচি করলে দ্রুত এই সমস্যা দূর হবে।

৭। মাসিকের সময় মেয়েদের তলপেটে প্রচন্ড ব্যথা হয়। কয় একটি লবঙ্গ পানিতে মিশিয়ে সিদ্ধ করে পানি টুকু হালকা ঠান্ডা করে পান করলে মাসিকের সময় তলপেট ব্যথা দূর হয়।

পরিশেষে, লবঙ্গতে ২০ থেকে ২৫ শতাংশ ক্লোভ তেল এবং ১০ থেকে ১৫ শতাংশ টাইটার পেনিক এসিড থাকে ফলে লবঙ্গ খেতে ঝাঁজালো। তাই বলে ঝাঁজের কারনে লবঙ্গ খাবেন না এটা ঠিক নয়। পরিমান মত নিয়মিত লবঙ্গ আপনাকে সুস্থ্য রাখতে অনেক সাহায্য করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here