স্মার্ট ফোন যে সকল ক্ষতি গুলো করে থাকে, স্মার্ট ফোনের কুফল সমূহ

0
392
স্মার্ট ফোন

আধুনিক যুগে আমরা স্মার্ট ফোন ছাড়া কোন কিছু চিন্তা করতে পারি না। এটা আমাদের প্রয়োজনীয় সঙ্গী একটি ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্র। সকালে ঘুম থেকে ওঠা থেকে শুরু করে ঘুমানো পর্যন্ত স্মার্ট ফোনের ব্যবহার হয়ে থাকে। কিন্তু আপনি একবারও কি ভেবে দেখেছেন, স্মার্ট ফোনের ক্ষতিকারক বিষয়গুলো? আপনি স্মার্ট ফোন ব্যবহার করেন তাতে কোন সমস্যা নেই কিন্তু একটা লিমিটের মধ্যে থেকে ব্যবহার করুন। চলুন আজ জেনে নেয়া যাক স্মার্ট ফোনের ক্ষতিকারক বিষয় সমূহঃ

চোখের ক্ষতিঃ
আমরা অনেকে একটানা অনেক সময় ধরে স্মার্ট ফোনের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকি এতে আমাদের চোথের রেটিনার ক্ষতি হয়। বয়স বৃদ্ধি হওয়ার সাথে সাথে চোখে ঝাপসা ও কম দেখা শুরু হয়। তাই স্মার্ট ফোন ব্যবহারে ৫ মিনিট পর পর চোখ অন্য দিকে সরান, সবুজ গাছ পালার দিকে তাকান।

হার্টের সমস্যাঃ
লক্ষ্য করলে দেখা যাবে অনেকে জামা কাপরের বুক পকেটে স্মার্ট ফোন রেখে দেয়। আপনি জানেন কি এটা কত বড় সমস্যা? মোবাইল নেটওয়ার্কের তরঙ্গ আপনার স্মার্ট ফোন সরাসরি গ্রহন করে এতে নেটওর্য়াকের তরঙ্গের পাওয়ার টি আপনার হার্ট পর্যন্ত বিস্তার করে থাকে। এতে আপনার হার্ট বা হৃদরোগ সমস্যা সৃষ্টি হবে।

কানে কম শোনাঃ
স্মার্ট ফোন ব্যবহারে অতিরিক্ত মানুষ হেডফোন বা ইয়ারফোন ব্যবহার করে থাকে। উচ্চতর সাউন্ড ব্যবহার করে গান শোনার কারনে কানে শব্দ দূষন হয়। এতে অনেকে কানে কম শোনে।

শুক্রানু বা বীর্য ক্ষতিগ্রস্থঃ
স্মার্ট ফোন প্যান্টের পকেটে রাখার কারনে আপনার শুক্রানু বা বীর্য কমে যেতে পারে। স্মার্ট ফোন থেকে হাই ফ্রিকোয়েন্সির ইলেকট্রো ম্যাগনেটিক রেডিয়েশন নির্গত হয়। এছাড়াও মস্তিষ্কে ক্যানসারের আগমন ঘঠতে পারে।

ঘুমের সমস্যাঃ
অনেকে ঘুমাতে যায় স্মার্ট ফোন অন রেখে মাথার বালিশের কাছে নিয়ে এতে হটাৎ কোন কল আসলে আপনার ঘুমের সমস্যা হবে। আবার অনেকে ঘুম থেকে তারা হুরা করে কল রিসিভ করে এতে আপনার স্ট্রোক হতে পারে।

টয়লেটের থেকেও নোংরাঃ
মার্কিন গবেষণায় দেখা গেছে একটি টয়লেটে যতগুন জীবাণু বা ব্যাকটেরিয়া থাকে তার থেকে ১০ গুন বেশি জীবাণু বা ব্যাকটেরিয়া একটি স্মার্ট ফোনে থাকে। এতে অনেকে হাতে ও কানে খোসপাচঁড়া সহ চুলকানী হতে পারে।

সর্বশেষে, অত্যাধুনিক যুগে স্মার্ট ফোনের প্রয়োজন আমাদের সকলের আছে। তাই বলে আনলিমিটেড ব্যবহার করতে হবে এমন কোন কথা নেই। আপনি একটু পরিমাপ মত ব্যবহার করুন এতে আপনার নিজেরই ভালো হবে। আগামী পর্বে আমরা স্মার্ট ফোনের উপকারীতা নিয়ে আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন সেই সাথে এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here