এক ভয়াবহ রোগের নাম হস্তমৈথুন, এই রোগ থেকে মুক্তির উপায় কি?

0
714
হস্তমৈথুন

ছেলেদের হস্তমৈথুনের সাধারন পদ্ধতি হল লিঙ্গ হাতের মুঠোয় নিয়ে সামনে ও পিছনে সজোরে সঞ্চালন করা । ফলে হাতের আঙ্গুলের সাহায্যে লিঙ্গের মুন্ডে চাপ কমে ও বাড়ে । পরিমিত মাত্রায় হস্তমৈথুন শরীরের কোনো ক্ষতি করে না। তবে তা খুব বেশি করলে এবং সেই অনুপাতে শরীরের যত্ন না নিলে শারীরিক ও মানসিক ভাবে ক্লান্তি আসতে পারে। সপ্তাহে দু তিন বার হস্তমৈথুন একেবারেই স্বাভাবিক ব্যাপার। অবশ্য যাদের কাছে এটা নেশার মতো মনে হয় এবং মনেপ্রাণে কমিয়ে বা বন্ধ করে দিতে চাইছেন, তাদের জন্য নিচে টিপস গুলো তুলে ধরা হলোঃ

অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের পরিণামঃ

  • অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে শক্তি হ্রাস
  • শারীরিক ব্যথা এবং মাথা ঘোরা
  • যৌন ক্রিয়ার সাথে জড়িত স্নায়ুতন্ত্র দুর্বল হওয়া অথবা ঠিক মত কাজ না করার পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়া
  • শরীরের অন্যান্য অঙ্গ যেমন, হজম প্রক্রিয়া এবং প্রসাব প্রক্রিয়ায় সমস্যা সৃষ্টি করে
  • হস্তমৈথুনের ফলে অনেকেই কানে কম শুনতে পারেন এবং চোঁখে ঘোলা দেখতে পারেন

তবে, যারা হস্তমৈথুনেঅভ্যস্ত, তাদের পক্ষে হঠাৎ করে হস্তমৈথুন ত্যাগকরা সম্ভব নয়। তাই ধীরে ধীরে হস্তমৈথুন ত্যাগ করুন এবং অকাল বীর্যপাত রোধ করুন।

হস্তমৈথুন ছাড়ার অভ্যাস করুনঃ

  • যেসব ব্যাপার আপনাকে হস্তমৈথুনের দিকে ধাবিত করে, সেগুলো ছুড়ে ফেলুন, সেগুলো থেকে দূরে থাকুন।
  • যদি মাত্রাতিরিক্ত হস্তমৈথুন থেকে সত্যি সত্যিই মুক্তি পেতে চান তাহলে পর্নো মুভি বা চটির কালেকশন থাকলে সেগুলো এক্ষুনি নষ্ট করে ফেলুন। পুড়িয়ে বা ছিড়ে ফেলুন।
  • কোন কোন সময় হস্তমৈথুন বেশি করেন, সেই সময় গুলো চিহ্নিত করুন। বাথরুম বা ঘুমাতে যাওয়ার আগে যদি উত্তেজিত থাকেন, বা হঠাৎ কোনো সময়ে যদি এমন ইচ্ছে হয়, তাহলে সাথে সাথে কোনো শারীরিক পরিশ্রমের কাজে লেগে যান।
  • হস্তমৈথুনের কথা মনে আসলে আপনার কোনো প্রিয় ব্যক্তি অথবা আত্মীয় স্বজন যিনি মারা গেছেন তার কথা মনে করুন, তার মৃত্যুর দিনটি মনে করুন। দেখবেন আপনার আর হস্তমৈথুন করতে ইচ্ছে করবে না।
  • ঘুমে সমস্যা হলে তখন সুগারফ্রি মিন্টস বা ক্যান্ডি চিবোতে পারেন। হালকা কিছু খেলেও তখন উপকার হয়। তবে ঘুমিয়ে পড়ার আগে দাঁত ব্রাশ করে নেবেন।
  • কম্পিউটারে পর্নো ব্লকিং সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিন। আজব একটা পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখেন যাতে পরে ভুল যান। অথবা কোন বন্ধুকে দিয়ে পাসওয়ার্ড দিন, নিজে মনে রাখবেন না।
  • কম্পিউটারে পর্নো দেখতে দেখতে হস্তমৈথুন করলে কম্পিউটার লিভিং রুমে নিয়ে নিন যাতে অন্যরাও দেখতে পায় আপনি কী করছেন। এতে পর্নো সাইটে ঢোকার ইচ্ছে।কমে যাবে।
  • হস্তমৈথুন একেবারেই ছেড়ে দিতে হবে না। নিজেকে বোঝাবেন যে মাঝে মাঝে করবেন। ঘনঘন নয়।
  • যারা বাজে বিষয় নিয়ে বা মেয়েদের নিয়ে বা পর্নো মুভি বা চটি নিয়ে বেশি আলোচনা করে, তাদেরকে এড়িয়ে চলুন।
  • যখন দেখবেন খুব বেশি হস্তমৈথুন করতে ইচ্ছে হচ্ছে এবং নিজেকে সামলাতে পারছেন না, বাইরে বের হয়ে জোরে জোরে হাঁটুন বা জগিং করুন।
  • সন্ধ্যার সময়ই ঘুমিয়ে পড়বেন না। কিছু করার না থাকলে মুভি দেখুন বা বই পড়ুন।
  • ভিডিও গেম খেলতে পারেন। এটাও হস্তমৈথুনের কথা ভুলিয়ে দেবে।
  • হস্তমৈথুনে চরম ভাবে এডিক্টেড হলে কখনোই একা থাকবেন না, ঘরে সময় কম কাটাবেন, বাইরে বেশি সময় কাটাবেন। জগিং করতে পারেন, সাইকেল নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন। ছাত্র হলে ক্লাসমেটদের সাথে এক সাথে পড়াশুনা করতে পারেন।

উপরোক্ত নিয়ম গুলো ছাড়া হস্তমৈথুন ছাড়ার কোন ঔষধ নেই।

বিঃদ্রঃ নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন সেই সাথে এই পোষ্টটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here